আজ ভয়াল ২১ আগস্ট


প্রকাশের সময় : আগস্ট ২১, ২০২১, ৩:১৩ অপরাহ্ণ
আজ ভয়াল ২১ আগস্ট

ডেস্ক রিপোর্ট

 

আজ ভয়াল ২১ আগস্ট। বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি নৃশংসতম ভয়াল হত্যাযজ্ঞ, নারকীয় সন্ত্রাসী এবং ভয়াবহ গ্রেনেড হামলার ১৭তম বার্ষিকী।

আজ থেকে ১৭ বছর আগে, ২০০৪ সালের এই দিনে গ্রেনেডের বিকট বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে ঢাকার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ। চারদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা লাশ, আহত মানুষের আর্তনাদ আর কাতর ছোটাছুটিতে তৈরি হয় বিভীষিকাময় মুহূর্ত। এই ঘটনায় স্তব্ধ হয়ে পড়েছিল গোটা জাতি।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনার সমাবেশে অতর্কিতে গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। মারা যান আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমানসহ ২৪ জন। আহত হন শেখ হাসিনাসহ পাঁচ শতাধিক নেতা-কর্মী। সাংবাদিকেরাও আহত হন। সেদিন রাজধানীর প্রতিটি হাসপাতালে আহতদের তিল ধারণের জায়গা ছিল না। দলীয় নেতাকর্মীরা মানববর্ম রচনা করায় ভাগ্যগুণে নারকীয় গ্রেনেড হামলায় শেখ হাসিনা অলৌকিকভাবে প্রাণে বেঁচে যান। ঘাতকদের প্রধান লক্ষ্য শেখ হাসিনা বেঁচে গেছেন দেখে তার গাড়ি লক্ষ্য করে  গুলি করা হয়। তবে টার্গেট করা গুলি ভেদ করতে পারেনি বঙ্গবন্ধুকন্যাকে বহনকারী বুলেটপ্রুফ গাড়ির কাচ। হামলার পরপরই শেখ হাসিনাকে কর্ডন করে গাড়িতে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় তার তৎকালীন বাসভবন ধানমন্ডির সুধা সদনে। ২১ আগস্টের রক্তাক্ত ঘটনায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন ১৬ জন। পরে সব মিলিয়ে নিহতের সংখ্যা দাঁড়ায় ২৪ জনে। রক্তাক্ত-বীভৎস ওই ভয়াল গ্রেনেড হামলায় সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রয়াত জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আইভি রহমান ছাড়াও সেদিন নিহত হন ল্যান্স কর্পোরাল (অব.) মাহবুবুর রশীদ, হাসিনা মমতাজ রিনা, রিজিয়া বেগম, রফিকুল ইসলাম (আদা চাচা), রতন শিকদার, মোহাম্মদ হানিফ ওরফে বীর মুক্তিযোদ্ধা হানিফ, মোশতাক আহমেদ, লিটন মুনশি, আবদুল কুদ্দুছ পাটোয়ারী, বিল্লাল হোসেন, আব্বাছ উদ্দিন শিকদার, আতিক সরকার, মামুন মৃধা, নাসির উদ্দিন, আবুল কাসেম, আবুল কালাম আজাদ, আবদুর রহিম, আমিনুল ইসলাম, জাহেদ আলী, মোতালেব ও সুফিয়া বেগম। গ্রেনেডের স্পিন্টারের সঙ্গে যুদ্ধ করে ঢাকার মেয়র মোহাম্মদ হানিফসহ আরো কয়েকজন পরাজিত হন।

এদিকে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত ব্যক্তিদের স্মরণে শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় দাউদকান্দি টোল প্লাজা এলাকায় ঝরনা সিনেমা হলের সামনে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ নারকীয় গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদ ও নিহতদের স্বরণে আলোচনা সভা করে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি সালেহ আহম্মেদ টুটুল।

শেয়ার করুন
error: কপিরাইট এর আওতাধীন!!